1. admin@admin.com : admin :
  2. info@bartabazaronline.com : বার্তা বাজার : বার্তা বাজার
  3. talukdermahabub1984@gmail.com : Mahabub Talukder : Mahabub Talukder
  4. sahonsrabon3@gmail.com : Sahon Srabon : Sahon Srabon
ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় ভোগান্তিতে হাজারো স্কুল শিক্ষার্থীরা "দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস ডামুড্যা পৌর মেয়রের" - Barta Bazar Online-বার্তা বাজার অনলাইন
২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ| গ্রীষ্মকাল| রবিবার| সন্ধ্যা ৬:৪৮|
ব্রেকিং নিউজ

ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় ভোগান্তিতে হাজারো স্কুল শিক্ষার্থীরা “দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস ডামুড্যা পৌর মেয়রের”

ডামুড্যা উপজেলা প্রতিনিধি
  • Update Time : সোমবার, জুলাই ১৭, ২০২৩,
  • 165 Time View
শরীয়তপুরের ডামুড্যা পৌরসভার দক্ষিণ ডামুড্যা ৬ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা  ইতালী প্রবাসী খোকন সরদার এবং ডামুড্যা পৌরসভা মেয়রের ভাই স্বপন ছৈয়ালের যৌথ বসত বাড়ির বিল্ডিংয়ের হাউজের ময়লা পানিতে রাস্তা ডুবে যাওয়ায়  দুইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা রয়েছে চরম ভোগান্তিতে। নাক ধরে ও পায়ে পড়া স্কুলের কেডস খুলে হাতে নিয়ে ক্লাসে যাচ্ছেন ছাত্র-ছাত্রীরা।ময়লা পানির দুর্গন্ধে ক্লাস করতে পারছে না  শিক্ষার্থীরা।শিক্ষার্থীরা নানা রোগেও আক্রান্ত হচ্ছেন।দুর্গন্ধের কারনে সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে পাশে থাকা আলহাজ্ব ইমাম উদ্দিন মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের হাজারো কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রী।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,ইতালি প্রবাসী খোকন সরদার ও স্বপন ছৈয়ালের বিল্ডিং এর  হাউজের ময়লা পানিতে ডুবে আছে সামনের রাস্তা।এছাড়াও বিল্ডিংয়ে বসবাস করা সকলের ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে রাস্তার পাশে।যা থেকে প্রতিনিয়ত দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে।রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত নাক ধরে যাতায়াত করছে অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী সহ এলাকার লোকজন।
পাশে থাকা আলহাজ্ব ইমাম উদ্দীন মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এবং মদীনাতুল উলুম ইসলামীয়া মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীরা ময়লার পানির উপর দিয়ে কষ্ট করে দুর্গন্ধ সহ্যকরে স্কুল মাদ্রাসায় যাচ্ছে।যার ফলে চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে স্কুল মাদ্রসায় পড়ুয়া এসব কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,ডামুড্যা পৌরসভার মেয়র রাজা ছৈয়ালের আপন ভাই স্বপন ছৈয়াল  ইতালি প্রবাসী খোকন সরদারের বাড়ির অংশের শুয়ারেজ লাইন এবং পানি নিস্কাশনের সকল ব্যবস্থা বন্ধ করে রেখেছেন।যার কারনে বাড়ির সামনে পাকা সড়কের উপর দিয়ে পচা ময়লা পানি প্রবাহিত হচ্ছে। যার কারনে দুর্গন্ধে  একটি মাদ্রাসাসহ দুইটি স্কুল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পড়েছেন বিড়ম্বনায়। অনেক   শিক্ষার্থীরা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে ও ক্লাসে অনিয়মিত হচ্ছে।
বিষয়টি নিয়ে ডামুড্যা পৌরসভা মেয়র, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ওসি, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সকলের কাছে বিচার চেয়েও কোন সুরাহা  পাননি ভুক্তভোগী ইতালি প্রবাসী খোকন সরদার।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ডামুড্যা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে রেজিস্ট্রিকৃত ৯৪৭ নং দলিল মুলে ডামুড্যা পৌরসভার ০৬ নং ওয়ার্ড  ইমাম উদ্দিন স্কুল সংলগ্ন  তৃতীয় তলা বিশিষ্ট একটি ভবনের খাড়া দুই ইউনিটের একাংশ সাফ কবলা দলিলের মাধ্যমে ক্রয় করিয়া উপরে আরো ০১ তলা প্রসারিত করেন খোকন সরদার। দীর্ঘদিন যাবত পানি নিষ্কাশনের সকল প্রক্রিয়া এবং নাগরিক সকল সুবিধা থেকে জোর পূর্বক বঞ্চিত করে রেখেছেন ডামুড্যা পৌরসভা মেয়রের ভাই  স্বপন ছৈয়াল ।
মদীনাতুল উলুম ইসলামিয়া মাদরাসার সহকারী শিক্ষক রিফাত হোসাইন বলেন, আসলে প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে হয় এবং ছাত্রছাত্রীরাও এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে। খুবই দুর্গন্ধ এবং বিরক্তিকর এবং রোগ বালাই আক্রান্ত হওয়ার একটি পরিবেশ। দ্রুত একটি ড্রেনের ব্যবস্থা না করলে এই আমাদের সকলকেই মারাত্মক রোগে আক্রান্ত হতে হবে।
বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী বলেন এখান দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করতে গেলে অনেক দুর্গন্ধ সহ্য করতে হয় এবং এতে আমাদের অনেক রোগ বালাই হচ্ছে তাই এই বাড়ির ড্রেনটি যদি মূল ড্রেনের সাথে একটি সংযোগ করে দেয়া হয় তাহলে আমাদের এই অসুবিধা হবে না আর পরিবেশও দূষিত হবে না।
মাদ্রাসার ছাত্র রবিউল বলেন,আমরা প্রতিদিন মাদ্রাসা যাওয়ার পথে এখানে অনেকেই পিছলে পড়ে যায়। এই রোড দিয়ে মশা হওয়ার উপদ্রব বেড়েছে । দ্রুত একটি ড্রেন করে এই ময়লা পানি গুলো বের করার ব্যবস্থা করা দরকার।
এ বিষয়ে স্বপন ছৈয়াল বলেন,আমরা রাস্তায় জায়গা দিয়েছি। তাই রাস্তার পাশ দিয়েও খোকন সরদারকে ড্রেনেজ ব্যবস্থা নিতে দিব না। আর আমার ভাইয়ের থেকে জমি কিনেছে খোকন সরদার। কিন্তু আমার ভাই যতটুকু বিক্রি করেছে ততটুকু সম্পত্তি আমার ভাই পাবে না। তাই আমি কোর্টে মামলা করবো।
এ বিষয়ে ডামুড্ড্যা পৌরসভার মেয়র  রাজা ছৈয়াল বার্তা বাজারকে বলেন,”আমার ভাই স্বপন ছৈয়ালকে  খোকন সরদার খেপাইয়া ফেলছে। জায়গাগুলো আমাদেরই ছিল এখন আমার এক ভাই মারা যাওয়ার পরে খোকন সরদারের কাছে বিল্ডিং সহ জায়গা বিক্রি করা হয়েছিল। তবে ড্রেনেজ ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে আমি এই বিষয়ে আমার ভাই স্বপনকে অনেক বোঝাচ্ছি আপনারা একটু সময় দেন আমি দ্রুত সমাধান করে দেব”
ডামুড্যা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন,আমার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন খোকন সরদার। ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকলে তো দুর্গন্ধ ছড়াবে এ বিষয় নিয়ে স্বপন এবং খোকন এরা একসাথে একটি দরবার বসেছিল। আমি সহ সেখানে সার্ভেয়ার ভূমি অফিসের লোক দলিলপত্র যাচাই করে  দেখি খোকন সরদার ০.৪৬ জমি পাওনা হয়ে যায় স্বপন ছৈয়ালদের কাছে। তারপরেও স্বপন ছৈয়াল ড্রেনেজ ব্যবস্থা করতে দিচ্ছে না। আমি স্বপনের ভাই মেয়র রাজা সাহেবকে বলতেছি। তিনি তো বিষয়টি মিট করার কথা বলেছিলেন। তবে আইনশৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটালে কেউ ছাড় পাবেনা।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসিবা খান বলেন,আমার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ইটালি প্রবাসী খোকন সরদার।কিন্তু মেয়র এর ভাই স্বপন ছৈয়াল ড্রেন বের করতে দিচ্ছে না খোকন সরদারকে ।  মেয়রের ভাই যেহেতু তাই মেয়রকেই বিষয়টি ভেঙ্গে দিতে বলেছিলাম। তবে স্কুল শিক্ষার্থীদের যদি কোন অসুবিধা হয় যাতায়াতে তাহলে এই বিষয়টা আমার দেখা উচিত আমি এই বিষয়টা দেখব।
শেয়ার করুন :

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

© All rights reserved ©

2023 Barta Bazar Online